ট্রাম্পের ভাষণ নিয়ে নানা নাটকীয়তা

Published: বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২০ ৫:১৬ অপরাহ্ণ   |   Modified: বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২০ ৫:১৬ অপরাহ্ণ
 

স্বাধীন খবর ডট কম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কংগ্রেসের উদ্দেশ্যে দেয়া বার্ষিক ভাষণ ঘিরে সৃষ্টি হয় নানা নাটকীয় ঘটনার। ভাষণ শুরু করার আগে প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি করমর্দন করতে গেলে, হাত সরিয়ে নেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। অন্যদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্টের ভাষণ শেষ করার পর তার পেছনে দাঁড়িয়ে ভাষণের কপি ছিঁড়ে ফেলেন পেলোসি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট তার ভাষণে অভ্যন্তরীণ এবং বহির্বিশ্বের বিভিন্ন ইস্যুতে মন্তব্য করেন।

কংগ্রেসের উদ্দেশ্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প স্টেট অব দ্যা ইউনিয়ন ভাষণ শেষ করার পর সবাই যখন দাঁড়িয়ে করতালি দিচ্ছিলেন, ঠিক তখন ট্রাম্পের পেছনে দাঁড়িয়ে ভাষণের কপি ছিঁড়ে ফেলছিলেন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি।

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ভাষণ শুরুর আগে, তার সঙ্গে করমর্দন করতে যান প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি। কিন্তু হাত সরিয়ে নেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এরপরই ভাষণ শুরু করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

এক ঘণ্টা আঠারো মিনিটের ভাষণে ট্রাম্প দাবি করেন, তার শাসনামলে যুক্তরাষ্ট্র আবারো ‘গ্রেট আমেরিকা’য় পরিণত হয়েছে। একইসঙ্গে কথার মারপ্যাচে তুলোধোনা করেন বিরোধী ডেমোক্র্যাটদের। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস থেকে মার্কিনদের রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, মাত্র তিন বছরের সংক্ষিপ্ত সময়ে আমরা আমেরিকা পতনের মানসিকতা ছিন্নভিন্ন করে দিয়েছি। যেসব বিষয় আমাদের ভাগ্যের জন্য ক্ষতিকর তা প্রত্যাখ্যান করেছি। আমরা সামনে এগিয়ে যাচ্ছি। আর কখনো আমেরিকাকে পেছনে ফিরে যেতে হবে না।

এছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রনীতি, অর্থনীতি, স্বাস্থ্য, বাণিজ্য, ইরান-ফিলিস্তিনসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন ইস্যুও তুলে ধরেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সম্প্রতি ঘোষিত শান্তি পরিকল্পনার মাধ্যমে ইসরাইল এবং ফিলিস্তিন সঙ্কটের সমাধান হবে বলেও দাবি করেন ট্রাম্প। একইসঙ্গে ইরানি প্রভাবশালী সমরবিদ জেনারেল কাশেম সোলাইনমানি হত্যাকাণ্ডের পক্ষে আবারো সাফাই গান তিনি।


ট্রাম্প বলেন, জেনারেল সোলাইমানি ইরাকে আমাদের প্রায় বিশ হাজার সেনা হত্যা করেছিলেন। এছাড়াও ইরাক ও সিরিয়ায় নারী শিশুসহ বহু সাধারণ মানুষকে সে হত্যা করেছে। পুরো মধ্যপ্রাচ্যে তার কারণে ঝুঁকির মুখে পড়েছে। এ কারণে তাকে হত্যার মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্য নিরাপদ করা হয়েছে।

কংগ্রেসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ভাষণ দেওয়ার সময় আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে ভেনেজুয়েলার বিরোধী নেতা হুয়ান গুয়াইদোসহ মার্কিন সামরিক বাহিনী ও প্রশাসনের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
 
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com