দেশে গণতন্ত্র নেই, দেশের মানুষের অধিকার হরণ করা হচ্ছে : ফখরুল

Published: শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০ ১:২৬ অপরাহ্ণ   |   Modified: শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০ ১:২৬ অপরাহ্ণ
 

স্বাধীন খবর ডট কম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘দেশে গণতন্ত্র নেই, দেশের মানুষের অধিকার হরণ করা হচ্ছে। এখানে আইনের শাসন নেই, ন্যায়বিচার নেই। যে চেতনাকে ভিত্তি করে ভাষা আন্দোলন হয়েছিল, স্বাধীনতা যুদ্ধ হয়েছিল, সেই গণতান্ত্রিক চেতনাসহ জনগণের অধিকার আজ ৬৮ বছর পরে বর্তমান দখলদার সরকার হরণ করেছে।’

আজ শুক্রবার সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর পর সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন বিএনপির সহাসচিব।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ভাষা আন্দোলনের ওপর ভিত্তি করে আমাদের স্বাধীন একটি ভূখণ্ড তৈরি হয়েছে, আমরা একটি পতাকা পেয়েছি। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয়, যে চেতনাকে ভিত্তি করে স্বাধীনতা যুদ্ধ হয়েছিল, সেই গণতান্ত্রিক চেতনাকে বর্তমান দখলদার সরকার হরণ করেছে।’

মির্জা ফখরুল আরো বলেন, ‘বর্তমান সরকার জনগণের সব অধিকার হরণ করে, জনগণের ভোটের অধিকার হরণ করে, বেঁচে থাকার অধিকার হরণ করে, গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করে দিয়ে একদলীয় একটি রাষ্ট্র ব্যবস্থা তৈরি করার জন্য আজ সব ধরনের অপকৌশল করছে।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘দুর্ভাগ্য আমাদের, যে গণতান্ত্রিক চেতনার ওপর ভিত্তি করে রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, তার ওপর ভিত্তি করে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করে তা প্রতিষ্ঠার জন্য সংগ্রাম করেছেন যে খালেদা জিয়া, সেই দেশনেত্রীকে আজ অন্যায়ভাবে, বেআইনিভাবে সাজা দিয়ে কারাবন্দি করে রাখা হয়েছে। এ দেশের সংবিধান অনুযায়ী, তাঁর যে ন্যূনতম প্রাপ্য সেই জামিন তাঁকে দেওয়া হচ্ছে না।’

বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘আমরা অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে আজ এই মহান দিবসে বলতে বাধ্য হচ্ছি, দেশে গণতন্ত্র নেই। আজ দেশের মানুষের অধিকার হরণ করা হয়েছে। এখানে আইনের শাসন নেই, ন্যায়বিচার নেই। গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার জন্য, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার জন্য আমরা শপথ নিচ্ছি—দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করব, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করব।’

এ সময় বিএনপির মহাসচিবের সঙ্গে দলটির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি, বিএনপির চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য খায়রুল কবির খান, প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন, তাবিথ আউয়াল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ভোর সাড়ে ৬টার দিকে বলাকা সিনেমা হলের সামনে অবস্থান নেন দলীয় নেতাকর্মীরা। তারপর সেখান থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের দিকে রওনা করেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
 
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com